মঙ্গলবার, ১৭ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

সব

Singapore
Corona Update

Confirmed Recovered Death
59,879 59,746 29

Bangladesh
Corona Update

Confirmed Recovered Death
543,717 492,059 8,356

কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের সুবর্ণজয়ন্তী

বাংলাদেশ-সিঙ্গাপুরের মধ্যে সহযোগিতা বাড়ানোর অঙ্গীকার

বাংলার কণ্ঠ ডেস্ক | ২৬ এপ্রিল ২০২২ | ৯:২৬ অপরাহ্ণ
বাংলাদেশ-সিঙ্গাপুরের মধ্যে সহযোগিতা বাড়ানোর অঙ্গীকার

বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুরের মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের কূটনৈতিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এবং সিঙ্গাপুরের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভিভিয়ান বালাকৃষ্ণান নিজ নিজ সরকারের প্রতিনিধিত্ব করেন। গত ১৮ অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে বাংলাদেশ—সিঙ্গাপুর কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের সুবর্ণজয়ন্তীতে দু’দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা আরও নিবিড় ও বেগবান করার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেন। ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকে তারা গুরুত্বপূর্ণ দ্বি—পাক্ষিক, আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেন। বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পক্ষে সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. তৌহিদুল ইসলাম, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক (দক্ষিণ—পূর্ব এশিয়া) মো. নাজমুল হুদা, পরিচালকসহ (পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দপ্তর) হাইকমিশনের কর্মকর্তারা। সিঙ্গাপুর সরকারের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সেদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ এশিয়া উইং—এর মহাপরিচালক গিলবার্ট ওহ্ এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত সিঙ্গাপুরের হাইকমিশনার ডেরেক লোহ্। করোনা মহামারি শুরুর পরে বন্ধুপ্রতীম দুই দেশের মধ্যে সরকারের মন্ত্রী পর্যায়ে এটাই প্রথম বৈঠক।
বৈঠকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গা সমস্যা নিরসনে মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ অব্যাহত রাখতে এবং আসিয়ান ফোরামে সেক্টরাল ডায়ালগ পার্টনার হিসেবে বাংলাদেশের অন্তভুর্ক্তি ত্বরান্বিত করতে সিঙ্গাপুর সরকারের সহায়তা কামনা করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে সিঙ্গাপুরের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. ভিভিয়ান বালাকৃষ্ণান উভয় ক্ষেত্রেই তার সরকারের অকুণ্ঠ সমর্থনের কথা জানান।
সম্প্রতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে বিশেষ পুরস্কার চালু করেছে ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি সিঙ্গাপুর। এ সিদ্ধান্তের জন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন সিঙ্গাপুরের সরকার ও জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুর বন্ধুপ্রতীম দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০তম বার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণে দ্রুততম সময়ে চলমান ফ্রি ট্রেড অ্যাগ্রিমেন্ট বিষয়ক নেগোসিয়েশন সমাপ্ত করে চুক্তি সই সম্পন্নকরণ, ছাত্র ও পেশাদার পর্যায়ে প্রশিক্ষণ ও অভিজ্ঞতা বিনিময়ের উদ্দেশে বিভিন্ন স্কলারশিপ ও বৃত্তি চালুকরণ, খাদ্য নিরাপত্তা অর্জনে কারিগরি ও প্রযুক্তিগত সহায়তা দেওয়া, সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশের কৃষিজাত পণ্যের রপ্তানি বাড়ানো, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলা করে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে পারস্পরিক সহযোগিতা অব্যাহত রাখা, সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশি কর্মীদের নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি, নূন্যতম মজুরি নিশ্চিতকরণ ও স্বার্থসংরক্ষণসহ বিবিধ দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে তারা বিস্তারিত আলোচনা করেন। সিঙ্গাপুরের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. ভিভিয়ান বালাকৃষ্ণান এসব বিষয়ে সিঙ্গাপুর সরকারের সর্বোচ্চ সহযোগিতার আশ্বাস দেন।


এছাড়া গত ১৯ এপ্রিল রাষ্ট্রপতি ভবন ইস্তানায় সিঙ্গাপুরের রাষ্ট্রপতি হালিমাহ্ ইয়াকুবের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।  সিঙ্গাপুরের রাষ্ট্রপতি মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত ১০ লক্ষাধিক রোহিঙ্গাকে আশ্রয়দানের জন্য বাংলাদেশ সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করেন। বাংলাদেশ—সিঙ্গাপুর কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণ জয়ন্তীতে বন্ধুপ্রতিম দুই দেশের সহযোগিতা ও যোগাযোগ আরো নিবিড় হবে বলে সিঙ্গাপুরের রাষ্ট্রপতি আশা প্রকাশ করে এবং সিঙ্গাপুর সরকারের সম্ভাব্য সকল সহযোগিতার বিষয়ে রাষ্ট্রপতি হালিমাহ্ ইয়াকুব বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেন। সৌজন্য সাক্ষাৎকালে ড. মোমেন সিঙ্গাপুরের রাষ্ট্রপতিকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানান এবং বাংলাদেশ সফরের জন্য তাকে আমন্ত্রণ জানান।তবে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর রাষ্ট্রীয় সফরকে সরকারিভাবে অনেকটা ইতিবাচক হিসেবে দেখা হলেও প্রবাসী বাংলাদেশিরা নিজেদের ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিঙ্গাপুরে এসেছেন এটা অনেকেই জানেন না বলে মন্তব্য করেছেন। কেউ কেউ দূতাবাসের সেবা কার্যক্রম ও ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ জানিয়েছেন আবার কেউবা সিঙ্গাপুরে অবস্থানরত প্রবাসীদের সমস্যাকে গুরুত্ব না দিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে জোর দেয়ার প্রতি নারাজি দেখিয়েছেন। সিঙ্গাপুরে কোম্পানি কতৃর্ক বাংলাদেশিদের আইপি রিজেক্ট হচ্ছে, এন্ট্রি এপ্রম্নভাল নিয়মের পরিবর্তন, বেসিক বেতন দশকের পর দশক একই থাকছে, পাসপোর্ট সমস্যার সমাধান হচ্ছে না, হাইকমিশন থেকে প্রাপ্য সেবা পাচ্ছেন না এসব বিষয় নিয়ে সিঙ্গাপুর সরকারের সাথে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আলোচনা করা উচিত বলেও অনেকে মন্তব্য করেছেন। তবে সবারই এক কথা সিঙ্গাপুরের প্রবাসী বাংলাদেশিদের কল্যাণ হয় এমন কিছু বিষয় নিয়ে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর গুরুত্ব দেয়া উচিত ছিল। দ্য ডেইলি স্টার, ফেসবুক

 

Facebook Comments Box

সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের আরও খবর
আর্কাইভ
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১