শুক্রবার, ২৬শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সব

Singapore
Corona Update

Confirmed Recovered Death
59,879 59,746 29

Bangladesh
Corona Update

Confirmed Recovered Death
543,717 492,059 8,356

একাডেমি তৈরিতে উদাসীন বিসিবি

ক্রীড়া প্রতিনিধি | ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬:০৯ অপরাহ্ণ
একাডেমি তৈরিতে উদাসীন বিসিবি

নির্বাচন এলেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে (বিসিবি) উন্নতির হাজারটা জায়গা চোখে পড়ে পরিচালকদের। নির্বাচন চলে গেলে সব ভুলে যান তারা। ক্রিকেটারদের জন্য যেটা সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন সেই একাডেমি হয় না। মাঠ সংস্কার, নতুন স্টেডিয়াম তৈরিসহ বিভিন্ন ইস্যুতে কোটি কোটি টাকা খরচ হলেও একাডেমি তৈরিতে উদাসীন বিসিবি। বয়সভিত্তিক থেকে শুরু করে হাই পারফরম্যান্স (এইচপি), জাতীয় ক্রিকেটার, জাতীয় দল, সফরে আসা বিদেশি ও মহিলা দল-সবারই ভরসা মিরপুর একাডেমি।

ক্রিকেটাররা ঢাকার বাইরে গিয়ে বেশিদিন থাকতে পারেন না অনুশীলনের তেমন সুযোগ-সুবিধা না থাকায়। মিরপুরে সারতে হয় জিম ও অনুশীলন। অথচ জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের অধিকাংশই ঢাকার বাইরের। খুলনা থেকে মানসম্মত ক্রিকেটার বেশি উঠে আসে। সেই খুলনায় একাডেমি দূরের কথা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটই বন্ধের পথে। চট্টগ্রাম ও সিলেটে নিয়মিত আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হলেও সেখানেও নেই কোনো একাডেমি। করোনায় আরও সংকটে ক্রিকেটাররা। ক্রিকেটারদের অনুশীলন ও ফিটনেস ঠিক রাখাসহ স্থায়ীভাবে থাকার জন্য একাধিক একাডেমির কোনো বিকল্প নেই। সবশেষ কয়েকটি সিরিজের সময় জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা ছাড়া আর কেউ বিসিবিতে ঢুকতে পারেননি। এই সময়ে নারী ও দলের বাইরে থাকা ক্রিকেটারদের দেখা গেছে বাড়ির সিঁড়িতে কিংবা বাসার গাড়ি পার্কিংয়ের জায়গায় ঘাম ঝরিয়ে ফিটনেস ঠিক রাখছেন। মিরপুরে বিসিবির একাডেমিতেও ক্রিকেটারদের থাকার নেই পর্যাপ্ত জায়গা। যাদের ঢাকায় বাসা নেই তাদের অনেককেই তাই হোটেলে থাকতে হয়।

শুধু মাঠ সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণে প্রতি বছর বিসিবির খরচ হয় দুই কোটি টাকার বেশি। নিরাপত্তার জন্য প্রতি বছর বিসিবির ব্যয় হয় সাড়ে তিন কোটি টাকা। ২০১৭-২০২০-এ বিসিবি অবকাঠামো ও মাঠ উন্নয়নে ব্যয় করেছে সাড়ে নয় কোটি টাকা। বিসিবি ২০১৯-২০ সালে ভ্যাট দিয়েছে ২৬ কোটি টাকা। ক্রিকেটার তৈরি ও তাদের সুযোগ-সুবিধার জন্য ব্যয় নিয়ে কোনো ভাবনা নেই বোর্ডের। পরিচালক পদে মনোয়নপত্র জমা দিয়ে টানা দুবারের বোর্ড পরিচালক ও প্রথম টেস্ট অধিনায়ক নাঈমুর রহমান দুর্জয় বলেন, ‘টাকা জমিয়ে রাখা, এফডিআর করা, এই বিষয়গুলো থেকে বেরিয়ে এসে আঞ্চলিক ক্রিকেটের উন্নয়নে আরও বেশি ব্যয় করা উচিত।’ বোর্ডের এক পরিচালক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘বোর্ডে যারাই আসে তারাই চায় তাদের নিয়ন্ত্রণে সব কাজ হোক। ঢাকার বাইরে তাই খুব বেশি উন্নয়ন নিয়ে এগোতে চায় না বিসিবি।’

বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান বলেন, ‘কোভিডের কারণে একাডেমির প্রয়োজনীয়তা আরও বেশি অনুভব হচ্ছে। যদিও আমরা চট্টগ্রামে দেড় বছর আগে একটা একাডেমির কার্যক্রম শুরু করেছি। কিন্তু করোনার কারণে সেটা এগোয়নি। আশা করি, পর্যায়ক্রমে খুলনাসহ দেশের অন্য বিভাগগুলোতেও একাডেমি হবে।’

Facebook Comments Box

সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের আরও খবর
আর্কাইভ
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০