সোমবার, ১৮ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সব

Singapore
Corona Update

Confirmed Recovered Death
59,113 58,846 29

Bangladesh
Corona Update

Confirmed Recovered Death
527,632 472,437 7,906

প্রবাসী বন্ড কিনলে নেই প্রণোদনা

অনলাইন ডেস্ক | ০১ অক্টোবর ২০২০ | ৩:১৭ অপরাহ্ণ
প্রবাসী বন্ড কিনলে নেই প্রণোদনা ফাইল ছবি

গত অর্থবছর থেকে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্সে ২ শতাংশ হারে প্রণোদনা দিচ্ছে  সরকার। অর্থাৎ কোনো প্রবাসী দেশে ১০০ টাকা পাঠালে তার স্বজনরা ১০২ টাকা তুলতে পারছেন।

কিন্তু রেমিটেন্সের টাকা দিয়ে প্রবাসী বন্ড কিনলে এই প্রণোদনা পাওয়া যাবে না।

banglarkantha.net

বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা নীতি বিভাগ থেকে জারি করা এক সার্কুলারের মাধ্যমে বিষয়টি পরিস্কার জানিয়েছে দেওয়া হয়েছে।

সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো সার্কুলারে বলা হয়েছে, “অন্য কোনো ব্যক্তির নামে ক্রয়কৃত ওয়েজ আর্নার ডেভেলপমেন্ট বন্ডের পাশাপাশি নিজ নামে ক্রয়কৃত ওয়েজ আর্নার ডেভেলপমেন্ট বন্ড, ইউএস ডলার ইনভেস্টমেন্ট বন্ড ও ইউএস ডলার প্রিমিয়াম বন্ডে বিনিয়োগের বিপরীতে নগদ প্রণোদনা/সহায়তা প্রযোজ্য নয়।”

বিদেশে অবস্থান করেন, এমন যেকোনো বাংলাদেশি চাইলেই প্রবাসী বন্ডে বিনিয়োগ করে ১২ শতাংশ পর্যন্ত মুনাফা নিতে পারেন। এর সবই জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরের চালু করা বন্ড।

১৯৮৮ সালে চালু হওয়া পাঁচ বছর মেয়াদি ওয়েজ আর্নার ডেভেলপমেন্ট বন্ড, ২০০২ সালে চালু হওয়া তিন বছর মেয়াদি ইউএস ডলার প্রিমিয়াম বন্ড এবং ইউএস ডলার ইনভেস্টমেন্ট বন্ডে বিনিয়োগ করে এ সুবিধা পাওয়া যায়।

এর মধ্যে ২০১০ সালের ১ জুলাই থেকে ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত এসব বন্ড বিক্রি বন্ধ ছিল।

রেমিটেন্সের টাকা দিয়ে এই তিন ধরনের বন্ড কিনলে ২ শতাংশ প্রণোদনা দেওয়া হবে না-এ বিষয়ে ব্যাংকগুলো বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে জানতে চেয়েছিল।

গত ১৬ জুলাই কেন্দ্রীয় ব্যাংক এ বিষয়ে মতামত জানতে অর্থমন্ত্রণালয়কে একটি চিঠি দিয়েছিল।

সেই চিঠির জবাবে গত ১৫ সেপ্টেম্বর অর্থমন্ত্রণালয় একটি চিঠির মাধ্যমে এ বিষয়ে সরকারের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, “নির্দেশক্রমে জানানো যাচ্ছে যে, অন্য কোনো ব্যক্তির নামে ক্রয়কৃত ওয়েজ আর্নার ডেভেলপমেন্ট বন্ডের পাশাপাশি নিজ নামে ক্রয়কৃত ওয়েজ আর্নার ডেভেলপমেন্ট বন্ড, ইউএস ডলার ইনভেস্টমেন্ট বন্ড ও ইউএস ডলার প্রিমিয়াম বন্ডে বিনিয়োগের বিপরীতে নগদ প্রণোদনা/সহায়তা প্রযোজ্য নয়।”

অর্থমন্ত্রণালয়ের এই নির্দেশনাই বুধবার সার্কুরার জারির মাধ্যমে ব্যাংকগুলোকে জানিয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এ বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে আমাদের বলেন, “তিন ধরনের প্রবাসী বন্ড থেকে ভালো মুনাফা পাওয়া যায়। এর বাইরে ২ শতাংশ প্রনোদনা কোনোভাবেই যুক্তিযুক্ত নয়।”

জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরের সর্বশেষ তথ্যে দেখা যায়, চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে মোট ২২০ কোটি ১৫ লাখ টাকার প্রবাসী বন্ড বিক্রি হয়েছে।

এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি বিনিয়োগ হয়েছে ওয়েজ আর্নার ডেভেলপমেন্ট বন্ডে; ১৬৩ কোটি ২৬ লাখ টাকা। ইউএস ডলার প্রিমিয়াম বন্ড বিক্রি হয়েছে ১০ কোটি ৭৮ লাখ টাকা। আর ইউএস ডলার ইনভেস্টমেন্ট বন্ডে বিনিয়োগ হয়েছে ৪৬ কোটি ১১ লাখ টাকা।

Facebook Comments

সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
এ বিভাগের আরও খবর
আর্কাইভ
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১